যমুনা ফিউচার পার্ক সিনেপ্লেক্স টিকেট প্রাইস | Jamuna Future Park Location

4.1/5 - (15 votes)

যমুনা ফিউচার পার্ক (Jamuna Future Park) বাংলাদেশের অন্যতম স্বনামধন্য একটি মার্কেট প্লেস। এটি বাংলাদেশের বৃহত্তম শপিং মল গুলোর একটি। এখানে প্রায় ৫০০টিরও বেশি খুচরা ও পাইকারি দোকান রয়েছে। ছুটির দিনে ভালো কোন জায়গায় ঘুরতে জেতে চান ? তাহলে এই পার্ক এ হবে আপনার জন্য এবং আপনার আপনজন দের জন্য বিনোদন মুলক একটি দিন।

যমুনা ফিউচার পার্ক বন্ধের দিন, কিভাবে যাব, যমুনা ফিউচার পার্ক সিনেপ্লেক্স টিকেট প্রাইস, যমুনা ফিউচার পার্ক মোবাইল মার্কেট এবং যমুনা ফিউচার পার্ক কোথায় অবস্থিত এসব সম্পর্কে বিস্তারিত আপনাদের জানানোর চেষ্টা করব।

যমুনা ফিউচার পার্ক
যমুনা ফিউচার পার্ক

যমুনা ফিউচার পার্ক

যমুনা ফিউচার পার্ক ( Jamuna Future park ) বাংলাদেশের বৃহত্তম বিনোদন পার্ক। ঢাকার উত্তর সিটি কর্পোরেশন মিরপুরের পাশে অবস্থিত এ পার্কটি প্রায় ৩০০ একর এলাকা জুড়ে বিস্তৃত। এটি দক্ষিণ এশিয়ার সর্ববৃহৎ শপিং মল হিসেবে স্বীকৃত।

২০১৩ সালের ৬ সেপ্টেম্বর এটি সকলের জন্য উন্মুক্ত করে দেওয়া হয়। তখন থেকেই এটি পরিবার পরিজন, বন্ধু-বান্ধব এবং বিভিন্ন ভ্রমণ পিপাসুদের জন্য একটি জনপ্রিয় গন্তব্যে পরিণত হয়েছে।

যমুনা ফিউচার পার্কের ডিজাইন করেন স্থপতি কাশেম মাহবুব চৌধুরী। বাংলাদেশেই নয় পুরো দক্ষিণ এশিয়ার মধ্যে বৃহত্তম শপিং মল হিসেবে পরিচিত। এর আয়তন প্রায় ৪১ লক্ষ বর্গফুট। মোট আট (০৮) তলা বিশিষ্ট এই পার্ক এর তত্ত্বাবধায়ক এবং মালিক হিসেবে রয়েছেন যমুনা গ্রুপ।

আপনি কি শিক্ষা, ট্রেনের খবর, ট্রাভেল গাইড, মার্কেট গাইড সহ সকল জেলার আপডেট পেতে চান ? আপনাকে উঁকি মারতেই হবে আমাদের ফেসবুক পেজ এ!!

যমুনা ফিউচার পার্ক কোথায় অবস্থিত

যমুনা ফিউচার পার্ক রাজধানীর কুড়িল বিশ্ব রোডের পাশে বারিধারাতে অবস্থিত বিনোদনের জন্য একটি আদর্শ জায়গা। এটি হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর, কুরিল বিশ্বরোড এবং বসুন্ধরার কাছেই অবস্থিত।

এ পার্কটি বিশ্বের মধ্যে তিন নম্বর বৃহত্তম পার্ক হিসেবে অবস্থান করেছে এবং দক্ষিণ এশিয়ার মধ্যে বৃহত্তম। এটি শুধু কেনাকাটার মধ্যে সীমাবদ্ধ নয়। ছুটির দিনগুলোতে পরিবারের সকলে মিলে ভ্রমণ করার জন্য আসতে পারেন। বঙ্গবন্ধু সামরিক জাদুঘর এর এর মতই এখানে বেশ কিছু গ্যালারী ও প্রদর্শনী রয়েছে।

কি কি রয়েছে

এখানে বেশ কিছু দৃষ্টিনন্দন প্রদর্শনী রয়েছে। বেশ কিছু আকর্ষণীয় গ্যালারিও রয়েছে। সবচেয়ে আকর্ষণীয় একটি প্রদর্শনী হচ্ছে স্কাইদড্রপ যেটি গেইট দিয়ে প্রবেশ এর মুহূর্তেই দেখা যাবে।

এছারাও এখানে রয়েছেঃ

  • রোলার কোষ্টার
  • ম্যাজিক উইন্ডমিল
  • পাইরেট শিপু
  • ফুডকোর্ট
  • মানসম্মত রেস্টুরেন্ট
  • ফ্লাইং ডিসকো
  • টাওয়ার চ্যালেঞ্জার ইত্যাদি।

এসবের বাইরেও রয়েছে ব্লক ব্লাস্টার সিনেমা হল, প্লেয়ারস জোন, সুবিশাল পার্কিং সুবিধা সহ বিনোদনের সকল ধরণের সুবিধা। তো দেরি কেন আজই চলে আসুন আপনার স্বপ্নের এই পার্কটিতে। আর উপভোগ করুন মজার সব রাইডস এবং বউ পোলাপান, বন্ধু বান্ধব নিয়ে হারিয়ে যান স্বপ্নের দুনিয়ায়।

বলে রাখা ভালো, রোলার কোষ্টার এর টিকেট প্রাইস ৩০০ টাকা, টাওয়ার চ্যালেঞ্জার ১৫০ টাকা, ম্যাজিক উইন্ডমিল ১৫০ টাকা, স্কাই ড্রপ ১৫০ টাকা, পাইরেট শিপ ১৫০টাকা সহ সবগুলো রাইডস এ উঠতে হলে প্রায় ৭০০-৮০০ টাকা খরচ হবে।

যমুনা ফিউচার পার্ক কবে বন্ধ থাকে

এই পার্কটি বাংলাদেশ সরকার এর মার্কেটিং রুলস অ্যান্ড রেগুলেশন অনুসারে সপ্তাহের সকল দিন খোলা থাকে না। ফিউচার পার্ক প্রতিদিন সকাল ১০ ঘটিকা থেকে রাত ০৯ ঘটিকা পর্যন্ত খোলা থাকলেও প্রতি বুধবার বন্ধ থাকে।

বন্ধের দিন

  • দক্ষিন এশিয়ার বৃহত্তম পার্ক (Jamuna future Park) এর সাপ্তাহিক বন্ধের দিন বুধবার। ছুটির দিন ছাড়া প্রতিদিন সকাল ১০ টা থেকে রাত ০৯টা পর্যন্ত জাঁকজমকের সাথে খোলা থাকে এই ঐতিহ্যবাহী পার্ক টি।

যমুনা ফিউচার পার্ক কিভাবে যাব

রাজধানী ঢাকার যেকোনো এলাকা থেকে খুব সহজেই যাওয়া যাবে। সিএনজি, বাস, প্রাইভেট কার কিংবা মোটরসাইকেল এ করেও যাওয়া যায়। বাসে করে যাওয়া অনেক সহজ এবং আরামদায়ক হবে সকলের জন্য। তো চলুন জেনে নিই ঢাকার কোন এরিয়া থেকে কি কি বাস চলাচল করে থাকে এই রাস্তায়।

যাত্রা শুরুর স্থানযাওয়ার উপায়
মিরপুরমিরপুর হতে বেশ কয়েকটি বাস যমুনা ফিউচার পার্ক গেট এর সামনে দিয়ে যায়। তাদের মধ্যে অছিম, রাজধানী অন্যতম।তবে এয়ারপোর্ট গামী যেকোনো বাসে করে কুড়িল বিশ্ব রোড নেমে রাস্তা পার হয়ে মহাখালি রামপুরা/বাড্ডা গামী যেকোনো বাস।
গাবতলিএখান থেকে সরাসরি রাজধানী কিংবা অছিম বাস এ করে।
এয়ারপোর্ট/ উত্তরাএখান থেকে সরাসরি তোরাগ, ভিক্টর ক্লাসিক সহ বাড্ডা, রামপুরা গামী সকল বাসে করে একদম গেইট এর সামনে নামা যাবে।
ফার্মগেটএখান থেকে প্রথমে বাসে করে মহাখালি, গুলশান হয়ে বাড্ডা নামতে হবে তারপর সেকান থেকে বাসে করে। অথবা যদি কোন সরাসরি বাস থাকে উঠে যাবেন।
মালিবাগ/ মৌচাকএখান থেকে সরাসরি রমজান কিংবা তরঙ্গ প্লাস বাসে করে রামপুরা ব্রিজ নামতে হবে। তারপর এখান থেকে যেকোনো বাস কিংবা রিক্সায়।
বাসে যাওয়ার উপায়

মোবাইল মার্কেট

যমুনা ফিউচার পার্ক মোবাইল ও সকল ধরনের ইলেকট্রনিক্স পণ্য ক্রয় বিক্রয়ের একটি আদর্শ মার্কেট প্লেস। এখানে কম দামি, মাঝারি দামি থেকে শুরু করে লাখ টাকার আইফোন সহ বিভিন্ন ধরনের মোবাইল সামগ্রী পাওয়া যায়। এসবের মধ্যে, সামসাং, সিম্ফনি, শাওমি, নোকেয়া, ভিভো, অপো, রিয়েল মি সহ আইফোনের মত সকল সিরিজের ফোন পাওয়া যায়।

সময়সূচী

ফিউচার পার্ক এর সাপ্তাহিক বন্ধের দিন বুধবার। বন্ধের দিন ছাড়া প্রতিদিন সয়াল ১০টা থেকে রাত ০৮ টা পর্যন্ত খোলা থাকে। তবে পবিত্র রমজান মাসে সেই সময়ের পরিবর্তন ঘটে থাকে।

যমুনা ফিউচার পার্ক সময়সূচী
যমুনা ফিউচার পার্ক রমজানের সময়সূচী
  • রমজানের প্রথম সাত দিন সকাল ১১ টা থেকে রাত ৯টা পর্যন্ত খোলা থাকে।
  • দ্বিতীয় সপ্তাহে সকাল ১১টা থেকে রাত ১০টা এবং ফুডকোর্ট রাত ১১টা পর্যন্ত খোলা থাকে।
  • তৃতীয় সপ্তাহে শপিংমল সকাল ১১ টা থেকে রাত বারোটা (১২) পর্যন্ত খোলা থাকে এবং
  • এবং সর্বশেষ চাঁদরাত পর্যন্ত শপিংমল এবং ফুড কোর্ট মধ্যরাত পর্যন্ত খোলা থাকে ( কাস্টমার থাকা সাপেক্ষে )।

যমুনা ফিউচার পার্ক সিনেপ্লেক্স টিকেট প্রাইস

যমুনা ফিউচার পার্ক সিনেপ্লেক্স এর টিকিত কাটার জন্য সর্বপ্রথম https://www.jamunafuturepark.com/ এই লিংক এ প্রবেশ করতে হবে। তারপর একটু নিচের দিকে গেলে Buy Ticket অপশনে ক্লিক করে টিকেট কাটা যাবে। মুভি এবং সিট এর ওপর নির্ভর করে প্রাইস ২৫০ টাকা থেকে ৬০০ টাকা।

Buy Ticket অপশন এ ক্লিক করলে আর একটি নতুন পেজ ওপেন হবে। সেখান থেকে আপনি যে মুভি দেখতে চান তা সিলেক্ত করতে হবে।

যমুনা ফিউচার পার্ক সিনেমা হল

সিলেকশন এর পর অ্যাকাউন্ট রেজিস্ট্রেশন করতে হবে। অ্যাকাউন্ট রেজিস্ট্রেশন একবার করে ফেললে সেটি দিয়ে প্রতিবার টিকেট কাটা যাবে। রেজিস্ট্রেশন হয়ে গেলে কেমন সিট এ বসে ছবি দেখবেন তা সিলেক্ট করতে হবে।

মুভি এবং মুভি দেখার তারিখ দেওয়া হয়ে গেলে এখন সুবিধামত সময় সিলেক্ট করে কয়টি টিকেট কাটবেন তা সিলেক্ট করে দিলেই শেষ।

এবার ডাচ বাংলা ব্যাংক, বিকাশ কিংবা নগদ সহ অন্যান্য মোবাইল ব্যাংকিং ব্যাবহার করে অথবা কার্ড ইউজ করে পেমেন্ট করতে হবে। পেমেন্ট হয়ে গেলে আপনি টিকেটটি প্রিন্ট করে নিতে পারবেন অথবা স্কিনশত নিয়ে রাখবেন। কেননা তা হল এ প্রবেশের সময় দেখাতে বলা হবে।

গুলিস্তান থেকে যমুনা ফিউচার পার্ক

গুলিস্তান থেকে যমুনা ফিউচার পার্ক এ যাওয়ার জন্য বেশ কিছু বাস রয়েছে। এসবের মধ্যে ভিক্টর ক্লাসিক, বলাকা অন্যতম। তবে চাইলে সিএনজি কিংবা মোটরসাইকেল এ করেও আসা যাবে।

যমুনা ফিউচার পার্ক লোকেশন

লোকেশন অনুসারে এই পার্ক বারিধারা তে অবস্থিত। ঠিকানাঃ ক-২৪৪, কুরিল, প্রগতি সরনি, বারিধারা।

মোবাইল নম্বর

তাদের সাথে যোগাযোগ এর জন্য কল করুন ০১৯৩৭৪০০২০৫ নম্বরে অথবা তাদের ওয়েবসাইট এ ।

Similar Posts