টাঙ্গাইল কিসের জন্য বিখ্যাত | টাঙ্গাইল জেলার বিখ্যাত ব্যক্তি

3.9/5 - (18 votes)

খাল বিল নদি নালা পাহাড়-পর্বত বেষ্টিত প্রাকৃতিক সৌন্দর্যের একটি অনন্য জেলা টাঙ্গাইল। টাঙ্গাইল কিসের জন্য বিখ্যাত ও টাঙ্গাইল জেলার বিখ্যাত ব্যক্তি সহ আজ টাঙ্গাইল জেলা সম্পর্কে বিস্তারিত জানার চেষ্টা করব

টাঙ্গাইল জেলা বাংলাদেশের ১৯ তম জেলা। এই জেলার ভূখণ্ডটি ছিল নাছিরাবাদ জেলার অর্থাৎ ময়মনসিংহ জেলার অন্তর্গত। ৩৪১৪ বর্গ কিলোমিটার আয়তনের এই জেলাটি ১২ টি উপজেলা , ১৪ টি থানা ,১১ টি পৌরসভা, ১১০ টি ইউনিয়্ন, ২৭৪২ টি গ্রাম নিয়ে গঠিত। জনসংখ্যা ৪০ লক্ষ ৫ হাজার ৮৩ জন।

টাঙ্গাইল কিসের জন্য বিখ্যাত
টাঙ্গাইল জেলা

টাঙ্গাইল জেলা

১৯৬৯ খ্রিস্টাব্দের ১লা ডিসেম্বর টাঙ্গাইল জেলার মর্যাদা লাভ করে। চলুন এই টাঙ্গাইল জেলা কিসের জন্য বিখ্যাত তা জানার আগে এর ভূগলিক অবস্থান জেনে নিই।

টাঙ্গাইল জেলার উত্তর পূর্বাঞ্চলে রয়েছে সুবিস্তীর্ণ পাহাড়ি এলাকা, পশ্চিমাঞ্চলে যমুনা নদী, ধলেশ্বরী নদী , বইরাং, লৌহজং এবং মরা আত্রাই প্রভৃতি নদী। টাঙ্গাইল জেলায় রয়েছে নানা ইতিহাস ও ঐতিহ্য । টাঙ্গাইলের জমিদার বাডি গুলোই টা প্রমান করে দেয়।

টাঙ্গাইল কিসের জন্য বিখ্যাত

টাঙ্গাইল জেলা মূলত পোড়াবাড়ির চমচম , আনারস, টাঙ্গাইলের শাড়ি, মধুপুরের গড়, বঙ্গবন্ধু সেতু, জমিদার বাড়ি এবং গোপালপুরের ২০১ গম্বুজ মসজিদের জন্য বিখ্যাত। বাংলাদেশের তাত শিল্পের ইতিহাসে প্রাচীন ঐতিহ্যবাহী অঞ্চল এই টাঙ্গাইল জেলা। এ জেলার মধুপুর এ দেশের সবচেয়ে বেশি আনারস চাষ হয় যা এই জেলাকে বিখ্যাত ও জনপ্রিয় করে তুলেছে।

জেনে নিনঃ জামালপুর কিসের জন্য বিখ্যাত

টাঙ্গাইল জেলার ইতিহাস

টাঙ্গাইল জেলার উত্তরে জামালপুর ও ময়মনসিংহ জেলা পূর্বে ময়মনসিংহ ও গাজিপুর জেলা দক্ষিনে ঢাকা ও মানিকগঞ্জ জেলা পশ্চিমে যমুনা নদী ও সিরাজগঞ্জ জেলা অবস্থিত। আমরা ইতিমধ্যে জেনে ফেলেছি টাঙ্গাইল কিসের জন্য বিখ্যাত।

আরও বিস্তারিত ভাবে বলতে গেলে কুটিরশিল্প ও লোকশিল্পের কথা না বললেই নয়। টাঙ্গাইলের তাঁতশিল্প আমাদের দেশীয় সংস্কৃতি ও ঐতিহ্যের ধারকও বটে। দেশের অন্যতম লোকশিল্প ও কুটিরশিল্প হিসাবে খ্যাতি রয়েছে বিশ্বজুড়ে।

টাঙ্গাইলের দর্শনীয় স্থান সমূহ

টাঙ্গাইলে রয়েছে অনেক প্রত্নতাত্ত্বিক নিদর্শন। বিভিন্ন সময়ে এই অঞ্চল বিভিন্ন জমিদাররা এই অঞ্চলকে শাসন করেছেন। আমরা জেনে গেছি টাঙ্গাইল কিসের জন্য বিখ্যাত এখন জানব টাঙ্গাইলের দর্শনীয় স্থান সমূহ সম্পর্কে।

টাঙ্গাইলের দর্শনীয় স্থান এর সম্পর্কে বলতে গেলে প্রথমেই বলতে হয় টাঙ্গাইলের জমিদার বাডির কথা। টাঙ্গাইলের দর্শনীয় স্থানের মধ্যে রয়েছে আতিয়া মসজিদ, মধুপুর জাতীয় উদ্যান, সরকারী সাঁ’ দত কলেজ, করোনেশন ড্রামাটিক ক্লাব, কালীবাড়ি মন্দির, ২০১ গম্বুজ মসজিদ।

বাংলাদেশের সকল জেলার দর্শনীয় স্থান সম্পর্কে জেনে নিন
  • ধনবাডি জমিদার বাড়ি
  • ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অন্যতম প্রতিষ্ঠাতা এবং ব্রিটিশ সরকারের প্রথম প্রধানমন্ত্রী খান বাহাদুর সৈয়দ নবাব আলি চৌধুরী জমিদার বাড়ি
  • হেমনগর জমিদার বাড়ি
  • মহেজ জমিদার বাড়ি।
  • বাংলাদেশে যে কয়টি মুসলিম জমিদারা বাড়ি এখনো দারিয়ে আছে সেসবের মধ্যে অন্যতম দেলদোয়ার জমিদার বাড়ি।
  • করোটিয়া জমিদার বাড়ি।
  • বাংলাদেশের টাঙ্গাইল জেলার দেলদোয়ার উপজেলায় অবস্থিত প্রাচীন ঐতিহাসিক মসজিদ এই আতিয়া মসজিদ
  • বাংলাদেশের অন্যতম একটি জীব বৈচিত্র্যপূর্ণ উন্মুক্ত উদ্যান মধুপুর জাতীয় উদ্যান টাঙ্গাইলের দর্শনীয় স্থান এর একটি।এটিকে জাতীয় উদ্যান ঘোষণা করা হয় ১৯৬২ সালে।
  • ১৯১২ খ্রিস্টাব্দে প্রতিষ্ঠিত কালীবাড়ি মন্দিরে রয়েছে কালিমন্দির, শিবমন্দির, নটমন্দির ইত্যাদি।
  • টাঙ্গাইলের গোপালপুর উপজেলায় মুক্তিজুদ্ধা রফিকুল ইসলাম কল্যাণ ট্রাস্টের উদ্যোগে ২০১৩ সালে কাল শুরু হয় ২০১ গম্বুজ মসজিদ এর ।
  • এখন এখানে প্রায় ১৫০০০ মুসলমান একত্রে নামাজ আদায় করতে পারে এখানে।
  • বঙ্গবন্ধু সেতু তো আছেই।

টাঙ্গাইল জেলার বিখ্যাত ব্যক্তি

উনবিংস শতাব্দির শেষের দিকে টাঙ্গাইলের তাঁতশিল্পের ব্যাপক সম্প্রসারণ ঘটে। তারা মুলত মসলিন তাতশিলের বংশধর। তাদের আদি নিভাস ছিল ঢাকার ধান্ম্রাই ও চউহাত্তায়।

তারা দেলদয়ার ও সন্তোষ জমিদারের আমন্ত্রণে এই অঞ্চলে আসে। এ থেকেই বুঝা যায় এখানে অনেক বিখ্যাত বেক্তিবর্গ থাকেবেন।

  • টাঙ্গাইল জেলার বিখ্যাত ব্যক্তি দের মধ্যে মৌলবি মোহাম্মদ নায়িম উদ্দিন, সৈয়দ নবাব নওয়াব আলি চৌধুরী, রনদা প্রসাদ সাহা, ওয়াজেদ আলি খান পন্নি, আব্দুল করিম গজনবী, মাওলানা আব্দুল হামিদ খান ভাসানি, সামসুল হক, প্রিন্সিপাল ইব্রাহিম খাঁ অন্যতম।

এছাড়াও রয়েছেনঃ

  • হাতেম আলি খান
  • কিঞ্চির শাহ্‌
  • আবু সাইদ চৌধুরী
  • আলরাজি
  • আশ্রাফ সিদ্দিকি
  • রফিক আজাদ
  • মামুনুর রাশিদ প্রভৃতি মহামানবদের জন্ম এই টাঙ্গাইল জেলাতেই।

বহুকাল আগে থেকেই বংশ পরম্পরায় দক্ষ কারিগরের সুনিপুন হাতে তৈরি হচ্ছে বাহারি ধরনের শাড়ি বিশ্ববাজারে যার অবস্থান রয়েছে পাকাপোক্ত ভাবেই।

সকল ধর্ম বর্ণ নির্বিশেষে সম্প্রীতির মিল্বন্ধনে অটুট থেকে একে অপরের সাথে মিলেমিশে করছে বসবাস। এখানে মুক্তিযুদ্ধেরও রয়েছে অনেক ভুমিকা কাদেরি বাহিনি তারই বহিঃপ্রকাশ।

প্রশ্নঃ টাঙ্গাইলে কয়টি উপজেলা রয়েছে ?

উত্তরঃ১২ টি উপজেলা, ১৪ টি থানা ,১১ টি পৌরসভা, ১১০ টি ইউনিয়্ন, ২৭৪২ টি গ্রাম নিয়ে গঠিত টাঙ্গাইল জেলা।

প্রশ্নঃ টাঙ্গাইল কিসের জন্য বিখ্যাত ?

উত্তরঃ টাঙ্গাইল জেলা মূলত পোড়াবাড়ির চমচম , আনারস, টাঙ্গাইলের শাড়ি, মধুপুরের গড়, বঙ্গবন্ধু সেতু, জমিদার বাড়ি এবং গোপালপুরের ২০১ গম্বুজ মসজিদের জন্য বিখ্যাত।

প্রশ্নঃ টাঙ্গাইলের দর্শনীয় স্থান কি কি ?

উত্তরঃ টাঙ্গাইলের দর্শনীয় স্থানের মধ্যে রয়েছে আতিয়া মসজিদ, মধুপুর জাতীয় উদ্যান আরও জানতে পুরো বিষয়টি পড়ুন।

Similar Posts