জাতীয় বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি জাদুঘর কোথায় অবস্থিত – বিস্তারিত জানুন

5/5 - (1 vote)

জাতীয় বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি জাদুঘর (National Science and Technology Museum) রাজধানি ঢাকার আগারগাও বিএনপি বাজারে অবস্থিত একটি জনপ্রিয় দর্শনিয় স্থান। প্রতিদিন হাজার হাজার মানুষের ভির লক্ষ করা যায় যারা এখানকার প্রাকৃতিক সৌন্দর্য উপভোগ ও বিজ্ঞানের সূচনালগ্ন থেকে ব্যাবহার করা আদিম ও আধুনিক সব জিনিসপত্র দেখতে আসেন। আজকে আমরা জানতে চলেছি জাতীয় বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি জাদুঘর কোথায় অবস্থিত বিজ্ঞান জাদুঘর সময়সূচী টিকেট মূল্যসহ বিস্তারিত সব।

জাতীয় বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি জাদুঘর

১৯৬৫ সালের ২৬ই এপ্রিল প্রতিষ্ঠিত বিজ্ঞান জাদুঘর বাংলাদেশের একমাত্র জাদুঘর যেখানে হারানো প্রজাতির সকল প্রানির সহগ্রহশালা, বিশ্বের সর্ব প্রথম কম্পিউটার থেকে শুরু করে নিউটন, গ্যালিলিও, প্যাসকেল সহ প্রায় সব ধরনের বিজ্ঞানীর বৈজ্ঞানিক সূত্রের ব্যাখ্যা পাওয়া যাবে।

জাতীয় বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি জাদুঘর
জাতীয় বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি জাদুঘর

এই জাদুঘরটিতে বেশ কয়েকটি গ্যালারী রয়েছে, সেসবের মদ্ধে মহাকাশ গ্যালারী সবচেয়ে বেশি জনপ্রিয়। এখানে প্রতিদিন সন্ধ্যায় আকাশ পরিস্কার থাকা সাপেক্ষে চাঁদ, মঙ্গল সহ সকল গ্রহ টেলিস্কোপ এর মাধ্যমে দেখানো হয়ে থাকে।

পদার্থবিজ্ঞান গ্যালারী

গেইট দিয়ে প্রবেশ করার পর প্রথম যে গ্যালারিটি চোখে পরবে সেটি হচ্ছে পদার্থবিজ্ঞান গ্যালারী। এখানে নিউটনের প্রথম সূত্র, দ্বিতীয় সূত্র, তৃতীয় সূত্রের সুস্পষ্ট ব্যাখ্যা রয়েছে। শুধু তাই নয়, এখানে বিজ্ঞানী গ্যালিলিও, প্যাসকেল সহ অন্যান্য সকল বিজ্ঞানীদের নানান আবিস্কার এর নমুনা তুলে ধরা হয়েছে। মজার সব বৈজ্ঞানিক নিদর্শন দেখতে মিস করতে না চাইলে অবশ্যই এটি উপভোগ করবেন।

ভৌতবিজ্ঞান গ্যালারী

এটি পদার্থবিজ্ঞান গ্যালারীর সাথেই অবস্থিত। এখানে প্রবেশ এর পর উপরের দিকে তাকালেই সৌরজগতের গ্রহ ও গ্রহাণুপুঞ্জের অবিশ্বাস্য প্রদর্শনী দেখতে পারবেন। এখানে আরও রয়েছে পৃথিবীরসর্বপ্রথম নির্মিত আইবিএম কম্পিউটার (IBM Computer), পুরাতন টাইপ রাইটার, ফটোকপি মেশিন, প্রথম বিমানের ইঙ্গিন সহ অনেক কিছু।

জীববিজ্ঞান গ্যালারী

এটি ২য় তালাইয় অবস্থিত অন্যতম নিদর্শন নিয়ে গঠিত একটি পরিপূর্ণ গ্যালারী। এখানে গেলে সর্ব প্রথম মানব কঙ্কাল চোখে পরবে। এছারাও রয়েছেঃ

  • মানব ভ্রুনের বিভিন্ন অবস্থা (১ সপ্তাহ থেকে ৩৮ সপ্তাহ পর্যন্ত)।
  • তিমি মাছের বিশাল কঙ্কাল।
  • হারিয়ে যাওয়া সকল প্রজাতির প্রানি।
  • মস্তিষ্কের বিভিন্ন অবস্থা।
  • বিভিন্ন প্রজাতির মাছ, সাপ, গুইসাপ, বক, শকুন, বানর সহ অনেক প্রজাতির প্রানি।
  • মানব কৃমির বিভিন্ন দশা, বিভিন্ন প্রজাতি (যেমনঃ ফিতাকৃমি, গোলকৃমি ইত্যাদি)।

তথ্য প্রযুক্তি গ্যালারী

জাতীয় বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি জাদুঘর এর আর একটি অন্যতম গ্যালারী হচ্ছে তথ্য প্রযুক্তি গ্যালারী। এখানে টাস স্ক্রিন কিওস্ক থেকে শুরু করে RA-770 মডেলের এনালগ কম্পিউটার রয়েছে যেটি পারমাণবিক শক্তি কমিশনে ব্যাবহার করা হত। এছাড়াও এখানে বাংলাদেশের প্রথম কম্পিউটার IBM-1620 রয়েছে, যেটি ১৯৬৪ সালের শেষের দিকে বাংলাদেশে আনা হয়েছিল। এছাড়াও এখানে রয়েছেঃ

  1. IBM-1401 মেইনফ্রেম কম্পিউটার
  2. IBM-1622 কার্ড রিড পাঞ্চ
  3. IBM-1620 সিপিইউ
  4. হানিওয়েল ডিপিএস-৬
  5. IMB-370 মেইনফ্রেম কম্পিউটার
  6. IBM-3340, IBM-3310, IBM-3305, IBM-3540 ইত্যাদি

শুধু তাই নয়, ১৯৮৬ সালে বুয়েটের একটি টিম তৃতীয় প্রজন্মের IBM-4331 কম্পিউটারটি সংগ্রহ করেন। ইন্টারিয়েক্টিভ মনিটর, ইন্টেলের বিভিন্ন প্রসেসর, রাইজেন এর বিভিন্ন প্রসেসর, হার্ড ডিস্ক, রাম, রোম সহ কম্পিউটার এর যাবতীয় খুঁটিনাটি জিনিসপত্র দিয়ে ভরপুর এই গ্যালারিটি।

শিল্প প্রযুক্তি গ্যালারী

জাতীয় বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি জাদুঘর এর অন্যতম আকর্ষণীয় একটি গ্যালারী। এখানে পুরনো দিনের হারিয়ে যাওয়া সকল জিনিসপত্র দেখা যাবে। এখানে রয়েছে লাইনো কম্পোজ মেশিন, কপিকল, রাডার এন্টেনা ও রাডার ডিসপ্লে, বহু পুরাতন মুদ্রণ যন্ত্র, ইলেকট্রন মাইক্রোস্কোপ সহ নানান প্রকারের সব জিনিসপত্র। তাই এই ঐতিহাসিক নিদর্শন গুলো দেখতে হলে অবশ্যই এখানে আসবেন। এছাড়াও এখানে রয়েছেঃ

  • বলাকা বিমান ( সোভিয়েত ইউনিয়ন এর উপহার শেখ মুজিবের বেক্তিগত ব্যাবহার এর জন্য) এর জেট ইঞ্জিন
  • ১৪টি পিস্টন বিশিষ্ট বহু পুরাতন বিমানের ইঞ্জিন
  • লিভারের যান্ত্রিক সুবিধা। বলে রাখা ভালো লিভার হচ্ছে একটি সরল যন্ত্র জার মাধ্যমে অনেক ভারি জিনিস অল্প শক্তিতে তুলা সম্ভব।
  • পুরাতন গ্রামোফোন
  • ইঞ্জিন এয়ার টুয়ার
  • সাসপেনশন ব্রিজ

তবে এসবের মাঝে আপনাদের মন কেড়ে নিবে হার্ডিঞ্জ ব্রিজ এর মডেল, ইউরিয়া সার কারখানা মডেল, কর্ণফুলী কাগজ মিলের মডেল, চিনি কলের মডেল, রেডিও, জীবনতরি, পাতন যন্ত্র ইত্যাদি অমায়িক সকল নিদর্শন।

মহাকাশ বিজ্ঞান গ্যালারী

এটি জাতীয় বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি জাদুঘর এর সবচেয়ে আকর্ষণীয় গ্যালারী, কেননা এখানে আপনি 4D Movie দেখতে পারবেন। এখানে আশ্চর্য সব প্রদর্শনী রয়েছে। এসবের মদ্ধে অন্যতম হলঃ

  • সাউন্ড ডিস
  • ম্যাজিক ভিশন
  • টাচ দা ফুড
  • ডিসপ্লে ফোন
  • ফ্লাইট সিমুলেটর
  • লেজার শো
  • ম্যাজিক ক্যাটলি এবং
  • আস্ট্রকালচার

জাতীয় বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি জাদুঘর কোথায় অবস্থিত

জাতীয় বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি জাদুঘর (Science And Technology Museum) রাজধানী ঢাকার আগারগাও বিএনপি বাজারে অবস্থিত। সহজ ভাবে বলতে গেলে এই জাদুঘরটি ইউজিসি ভবন সংলগ্ন। এর পশ্চিমে বিএনপি বাজার, পূর্ব পার্শে আগারগাও ইউজিসি ভবন, উত্তর পাশে সঙ্গিত কলেজ এবং দক্ষিন পাশে বাংলাদেশ ফিল্ম আর্কাইভ অবস্থিত।

বিজ্ঞান জাদুঘর সময়সূচী

২০২৩ সালের নতুন সময়সূচী অনুসারে জাতীয় বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি জাদুঘর প্রতিদিন সকাল ৯টা থেকে বিকাল ৪টা পর্যন্ত খোলা থাকে। তবে গ্রীষ্মকালীন ও শীতকালীন সময়ে এর সময়সূচীর পরিবর্তন ঘটে থাকে। শীতকালীন সময়ে সকাল ৯ঃ৩০ মিনিট থেকে বিকাল ৪ঃ০০ টা পর্যন্ত খোলা রাখা হয়।

  • শীতকালীন সময়সূচীঃ শীতকালীন সময়ে অর্থাৎ নভেম্বর থেকে মার্চ মাস পর্যন্ত রবিবার থেকে বুধবার পর্যন্ত সকাল ৯ঃ৩০ মিনিট থেকে বিকাল ৪ টা পর্যন্ত খোলা থাকে। তবে শুক্রবার বিকাল ৩টা থেকে সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত এবং শনিবার সকাল ১০টা থেকে বিকাল ৬টা পর্যন্ত খোলা থাকে।
  • গ্রীষ্মকালীন সময়সুচিঃ গ্রীষ্মকালীন সময়ে অর্থাৎ এপ্রিল থেকে অক্টোবর মাস পর্যন্ত জাতীয় জাদুঘর রবিবার থেকে বুধবার সকাল ৯টা থেকে বিকাল ৪টা পর্যন্ত খোলা থাকে। কিন্তু শুক্রবার বেলা ৩ঃ০০টা থেকে সন্ধ্যা ৭ঃ০০টা পর্যন্ত খোলা থাকে। কিন্তু শনিবার এর সময়সূচী সকাল ১১ঃ০০টা থেকে সন্ধ্যা ৬ঃ০০টা।

আশেপাশের দর্শনীয় স্থান সমুহঃ

  1. বঙ্গবন্ধু সামরিক জাদুঘর
  2. বাংলাদেশ বিমান বাহিনী জাদুঘর
  3. জিয়া উদ্যান/ চন্দ্রিমা উদ্যান
  4. শিশু মেলা
বারবিজ্ঞান জাদুঘর সময়সূচী
শনিবার11:00 – 6:00
রবিবার9:00 – 4:00
সোমবার9:00 – 4:00
মঙ্গলবার9:00 – 4:00
বুধবার9:00 – 4:00
বৃহস্পতিবারসাপ্তাহিক বন্ধের দিন
শুক্রবার3:00 – 7:00
ছুটির দিনবন্ধ থাকে।
জাতীয় বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি জাদুঘর সময়সূচী ২০২৩

বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি জাদুঘর টিকেট মূল্য

জাতীয় বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি জাদুঘর এর প্রবেশ মূল্য আগে ১০ টাকা থাকলেও বর্তমানে তা বাড়িয়ে ২০ টাকা করা হয়েছে। এছাড়া 4D মুভি টিকেট মূল্য ৪০ টাকা এবং আকাশ পরিষ্কার থাকা সাপেক্ষে মহাকাশ পর্যবেক্ষণ টিকিট মূল্য মাত্র ১০ টাকা। আকাশ পর্যবেক্ষণ শুধুমাত্র শুক্রবার ও শনিবার সন্ধ্যায় ১ ঘণ্টার প্রদর্শনী দেখানো হয়ে থাকে।

বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি জাদুঘর কিভাবে যাবো

রাজধানী ঢাকার যেকোনো প্রান্ত হতে খুব সহজেই বাঙ্গাদেশ জাতীয় বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি জাদুঘরে আসা যাবে। যেকোনো প্রান্ত থেকে প্রথমে বাসে, মেট্রো ট্রেনে কিংবা সিএনজি করে প্রথমে আগারগাও নামতে হবে। তারপর এখান থেকে পায়ে হেটে অথবা রিক্সা করে যাওয়া যাবে খুব সহজেই।

যাত্রা শুরুর স্থানকিভাবে যাবেন
মিরপুর ১ ছাড়া সব সেক্টর হতেএখান থেকে কাজীপাড়া, শ্যাওড়াপাড়া, তালতলা হয়ে আগারগাও বাস ষ্টেশন যেতে হবে। সেখান থেকে পায়ে হেটে ২ মিনিট লাগবে। এখান থেকে আগারগাও বাস স্টপ পর্যন্ত শিকড়, বিহঙ্গ, আয়াত, হিমাচল, মিরপুর মেট্রো সহ সকল বাস।
মিরপুর ১ হতেএখান থেকে মিরপুর ১০ নং হয়েও আসা যাবে তবে বেস্ট রোড হচ্ছে টেকনিকাল, কল্যাণপুর, শ্যামলী হয়ে শিশু মেলা যাওয়া। সেখান থেকে পূর্বে পায়ে হেটে কিংবা লেগুনা রিক্সা করে। বেশ কিছু বাস এর মধ্যে প্রজাপ্রতি, মিরপুর মেট্রো, দিশারী, ট্রান্স সিল্ভা, বাহন সহ বেশ কিছু বাস। মিরপুর বাংলা কলেজ থেকেও লেগুনা করে ৬০ ফিট হয়ে সরাসরি যাওয়া যায়।
ফার্মগেট/ কাওরান বাজার হতেএখান থেকে খামারবাড়ি, বিজয় সরনি, হয়ে আইডিবি ভবন। তারপর এখান থেকে পশ্চিমে পায়ে হেটে ২ মিনিট।
মহাখালি/গুলশান/বাড্ডা/রামপুরা হতেসরাসরি আলিফ কিংবা বৈশাখী বাসে। এই বাস মহাখালি, প্রধানমন্ত্রী কার্যালয় এর সামনে দিয়ে বিজয় সরনি, আগারগাও বাস স্ট্যান্ড হয়ে সরাসরি পাসপোর্ট অফিস এর সামনে দিয়ে যায়।
উত্তরা/এয়ারপোর্ট হতেএখান থেকে মহাখালি হয়ে আসা সহজ। তবে চাইলে মিরপুর এর যেকোনো বাসে আসা যাবে। সরাসরি আসতে হলে আলিফ(হলুদ রঙের) বাস এ আসা যাবে অথবা বিকাশ পরিবহনে বিজয় সরনি নেমে সেখান থেকে যেকোনো বাস কিংবা রিক্সা।
শাহবাগ/প্রেসক্লাব/পল্টন/গুলিস্তান হতেএখান থেকে মিরপুর গামী সকল বাসে করে আগাওগাও বাস স্ট্যান্ড কিংবা শ্যামলী শিশু মেলা নামা যাবে। তারপর পায়ে হেটে কিংবা রিক্সায় সরাসরি।
নিউ মার্কেট/কলাবাগান/ধানমন্ডি হতেএখান থেকে আসার সহজ রাস্তা হল আসাদ গেট, গণভবন, মোহাম্মদপুর, সোহরাওয়ারদী হাসপাতাল হয়ে শ্যামলী শিশু মেলা। তারপর পায়ে হেটে রেডিও দিয়ে এক্তু উত্তরদিকে। মিরপুর গামী সকল বাসে আসা যাবে যেমন দিশারী, বাহন, ট্রান্সসিল্ভা, গাবতলি ৮নং ইত্যাদি। তবে আর একটি রাস্তা হল আসাদ গেট সংসদ ভবনের সামনে দিয়ে আগাওগাও বাস স্ট্যান্ড(মিরপুর মেট্রো বাস)।
গাবতলি/সাভার/ নবীনগর/বাইপাইল হতেএখান থেকে টেকনিক্যাল, কল্যাণপুর শ্যামলী হয়ে শিশু মেলা, তারপর রিক্সায় কিংবা লেগুনাতে। উল্লেখযোগ্য বাস এর মধ্যে লাব্বাইক, এম এম লাভ্লি, সাভার পরিবহন, গাবতলি ৮ নং ইত্যাদি।
মৌচাক/মালিবাগ/কমলাপুর হতেএখান থেকে সরাসরি আয়াত বাসে করে আগারগাও বাস স্ট্যান্ড নামা যাবে। মেট্রো রেল চালু হলে কমলাপুর থেকে সরাসরি আগাওগাও বাস ষ্টেশন নামা যাবে তারপর সেখান থেকে পায়ে হেটে।
নারায়ণগঞ্জ হতেসরাসরি আসতে হলে হিমাচল বাসে আগারগাও বাস স্টপ কিংবা মেঘলা বাসে করে শাহবাগ/কলাবাগান।তারপর শাহবাগ/ কলাবাগান হতে মিরপুর গামী সকল বাসে আগারগাও বাস স্ট্যান্ড কিংবা শিশু মেলা।
জাতীয় বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি জাদুঘর আসার উপায়

প্রশ্নঃ জাতীয় বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি জাদুঘর কোথায় অবস্থিত ?

উত্তরঃ জাতীয় বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি জাদুঘর (Science And Technology Museum) রাজধানী ঢাকার আগারগাও বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশন এর পাশে, নতুন রাস্তার একদম শেষ মাথায় বিএনপি বাজারে অবস্থিত।

প্রশ্নঃ বিজ্ঞান জাদুঘর কি ?

উত্তরঃ ১৯৬৫ সালের ২৬ই এপ্রিল প্রতিষ্ঠিত বিজ্ঞান জাদুঘর বাংলাদেশের একমাত্র জাদুঘর যেখানে হারানো প্রজাতির সকল প্রানির সহগ্রহশালা, বিশ্বের সর্ব প্রথম কম্পিউটার থেকে শুরু করে নিউটন, গ্যালিলিও, প্যাসকেল সহ প্রায় সব ধরনের বিজ্ঞানীর বৈজ্ঞানিক সূত্রের ব্যাখ্যা পাওয়া যাবে।

প্রশ্নঃ বিজ্ঞান জাদুঘর সময়সূচী ২০২৩

উত্তরঃ ২০২৩ সালের নতুন সময়সূচী অনুসারে জাতীয় বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি জাদুঘর প্রতিদিন সকাল ৯টা থেকে বিকাল ৪টা পর্যন্ত খোলা থাকে। এখানে প্রবেশ মূল্য মাত্র ২০ টাকা মাত্র।

Similar Posts